শক্তি দেখাতে রাশিয়ার বিশাল সামরিক মহড়া

423

এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে বিশাল এক সামরিক মহড়ার আয়োজন করেছে রাশিয়া। ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে এ মহড়া চলবে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। জানা গেছে, এরই মধ্যে বেলারুশ এবং কালিনিনগ্রাদে রুশ সৈন্যরা পৌঁছাতে শুরু করেছে। এক প্রতিবেদনে গার্ডিয়ান জানিয়েছে, স্নায়ুযুদ্ধ-পরবর্তী সময়ে এত বড় সামরিক মহড়ার আয়োজন দেশটি আর কখনোই করেনি।
সাম্প্রতিক মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রুশি হস্তক্ষেপের অভিযোগে মস্কোর ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস। মস্কোর বিরুদ্ধে অভিযোগ এবং নিষেধাজ্ঞাকে কেন্দ্র করে আবারও এই দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে। বিশেষজ্ঞদের অনেকেই মনে করছেন, এই পরিপ্রেক্ষিতেই নতুন করে ক্ষমতা প্রদর্শনে যাচ্ছে রাশিয়া। এই মহড়া এরই একটি বাস্তবতা। বিশেষজ্ঞরা আরও ধারণা করছেন, গত এক দশকজুড়ে দেশটির সশস্ত্র বাহিনী নিজেদের শক্তি ও সামর্থ্যরে ক্ষেত্রে দ্রুততম সময়ে আধুনিকায়ন ঘটিয়েছে।
অবশ্য এই মহড়া প্রসঙ্গে মস্কো জানিয়েছে, প্রতি চার বছর পর পর নিয়মিত মহড়ার অংশ হিসেবেই এই মহড়া। মস্কোর দাবি, এই মহড়ার পরিকল্পনা অনেক আগেই করা হয়েছে। এর সঙ্গে সাম্প্রতিক নিষেধাজ্ঞার কোনো যোগসূত্র নেই। এদিকে, ব্রাসেলসে ন্যাটোর সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে, রাশিয়ার সীমান্তে দেশটির সামরিক শক্তিবৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে তাদের কোনো ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখানোর পরিকল্পনা নেই।
প্রসঙ্গত, মার্কিন-রুশ সম্পর্কের অবনতির পেছনে ইউরোপের পূর্ব সীমান্তে ন্যাটো জোটের সৈন্য সংখ্যা বাড়ানোর বিষয়টিকেই দায়ী করে আসছে রাশিয়া। পশ্চিমা কর্তৃপক্ষ ও বিশ্লেষকদের ধারণা, জাপাড-১৭ নামের রাশিয়ার এই মহড়াতে এক লাখের মতো সেনা অংশ নেবে।

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.