প্রেম ও বহুবিধ নির্জনতা

সুজন সুপান্থ

332

স্মৃতিস্মরণি পেরিয়ে বাঁকা হয়ে যে পথটি চলে গেল শৈশবনগর, তার মধ্যবর্তী স্টেশনে বসে কী যেন ভাবছে শুষ্কঠোঁটের মেয়ে। তার মন খারাপের নিবিড়ে জমে উঠছে হরিণসন্ধ্যাকাল। এমন সন্ধ্যার ভেতরও কেমন ব্যথা জমে থাকে, ঘন কুয়াশার মতো। তবু দূর থেকে মশগুলে চেয়ে আছি তার ধূসরতার দিকে। এই ধূসরতার ভেতর থেকে জেগে উঠছে বহুবিচ্ছেদি প্রেমিকার মুখ, হাসি ভুলে যাওয়া শুষ্ক শুষ্ক ঠোঁট। স্মৃতি থেকে দুলে উঠছে আকরকণ্ঠ, তারামণিলতা। জেনো, এতটুকুই প্রেম, যার বহুবিধ নির্জনতা।
ও প্রেম, ও নির্জনতা, দেখো প্রেমিকের অভিমান থেকে কী করে জেগে উঠছে ঠোঁটের গোপন আর ছকের মতো মুছে যাচ্ছে সম্মুখ পথ; গভীর থেকে ছলকে উঠছে- না বলতে চাওয়া সমুদয় প্রাচীন কথা।
ও মেয়ে সন্ধ্যা পেরোনোর আগে জেনে নাও, এই দিকবদলের দিকে জমে আছে কতখানি শীতকাল। ভুলে যাও বিগত ফাটলের দিন। ধূসরতা ভেঙে বিপরীতে আসো, খুঁজে নাও ঠোঁটের শিরীন।

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.