চমক দেবে আইফোন ৮

297

বিশ্বজুড়ে অ্যাপল ভক্তরা নতুন আইফোনের প্রতীক্ষায় আছেন। এ বছরই নতুন আইফোনের ঘোষণা আসতে পারে মার্কিন এই প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে। প্রযুক্তিবিশ্লেষকেরা মনে করছেন, এবারে আইফোন ৮-এর ঘোষণা দেবে অ্যাপল। যদিও নামটি চূড়ান্ত হয়নি তারপরও প্রযুক্তিবিশ্বে এটি ঘিরে রয়েছে নানা কৌতূহল। এর নাম, ফিচার এবং দাম নিয়েও রয়েছে নানা গুঞ্জন।
শুরুটা অবশ্য গত বছরের সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোয় আইফোন ৭ ও ৭ প্লাস বাজারে আনার ঘোষণার পর থেকে। ওই আইফোন সম্পর্কে অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক বলেছিলেন, ‘আমরা এখনো পর্যন্ত যত আইফোন তৈরি করেছি, এর মধ্যে এটিই সেরা।’
তবে এ বছর হয়তো আবারও নতুন কিছু বলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন টিম কুক। কারণ, নতুন আইফোনের সঙ্গে তারহীন চার্জিং প্রযুক্তির পেটেন্টের সম্পর্ক খুঁজে পেয়েছেন বিশ্লেষকেরা।
প্রযুক্তিবিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, আইফোন ৮-এ তারহীন চার্জিং প্রযুক্তি ব্যবহার করতে পারে অ্যাপল।
জাপানের বৃহত্তম সংবাদপত্র নিক্কেইয়ের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এ বছর আইফোনের দশকপূর্তি হচ্ছে। তাই আইফোনের নতুন নকশায় যুক্ত হতে পারে সম্পূর্ণ কাচের তৈরি কাঠামো। এই গ্লাস কেসিং তৈরিতে কাজ করতে পারে অ্যাপল পণ্যের নির্মাণ সহযোগী ফক্সকন।
তাইওয়ানে অ্যাপলের যন্ত্রাংশ সরবরাহকারী এক সূত্রের বরাতে নিক্কেই জানিয়েছে, গত বছর থেকে ফক্সকন গ্লাস চেসিস তৈরির কাজ শুরু করেছে। এ ছাড়াও গুঞ্জন উঠেছে, বর্তমান এলসিডি প্যানেল থেকে অ্যাপল ওএলইডি ডিসপ্লে ব্যবহার শুরু করবে। বাঁকানো ডিসপ্লেযুক্ত আইফোনের আরেকটি মডেলও তৈরি করতে পারে অ্যাপল। আগামী অক্টোবর মাস নাগাদ অ্যাপল নতুন আইফোনের ঘোষণা দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
এদিকে বাজার-গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্যানালিসের বিশ্লেষক রুশাবা দোশি জানিয়েছেন, আইফোন ৮-এর জন্য হার্ডওয়্যার উন্নত করার পাশাপাশি নতুন সফটওয়্যার ও সেবা তৈরি করবে অ্যাপল। এতে উন্নত আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ব্যবহারও দেখা যেতে পারে।
অ্যাপলের ভবিষ্যতের পণ্য হিসেবে ভাবা হচ্ছে আইফোন ৮-কে। বাজার-বিশ্লেষকেরা বলছেন, আইফোন ৮ একটু বড় মাপের আইফোন হবে এবং এতে হোম বাটন স্ক্রিনে যুক্ত থাকবে। জানা গেছে, আইফোন ৮-এর তিনটি মডেল বাজারে ছাড়তে পারে অ্যাপল। একটি হবে ৪ দশমিক ৭ ইঞ্চি, দুটি সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের। এর মধ্যে একটি মডেলে বাঁকানো ডিসপ্লেও থাকতে পারে। অর্থাৎ, একটি মডেল স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি এস ৭ এজের মতো হতে পারে। আর তাতে তারহীন চার্জিং সুবিধা থাকতে পারে।
এ ছাড়া, একটি মডেলে ব্যবহৃত হতে পারে স্টেইনলেস স্টিল। এর সামনে থাকবে কাচ, যা ধাতব ফ্র্রেম দিয়ে ঘেরা থাকবে। খরচ কমানোর জন্যই ব্যবহার করা হচ্ছে স্টেইনলেস স্টিল। ক্যামেরা ও স্পিকারের ক্ষেত্রেও থাকবে নতুনত্ব। এর আগে আইফোন ৭-এর ক্ষেত্রে তারহীন এয়ারফোন এনেছিল অ্যাপল। এবার স্ক্রিনের তলাতেই থাকবে ক্যামেরা ও স্পিকার। দুটোই আকার এতটাই ছোট হবে যা চোখে দেখা যাবে না। নানা ধরনের সেন্সরও থাকবে ফোনটিতে। ফলে সহজেই স্ক্রিনে উঠে আসবে নানা রকমের তথ্য।
এদিকে, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, অ্যাপলের প্রতিদ্বন্দ্বী স্যামসাংয়ের সরবরাহ করা ওএলইডি স্ক্রিন থাকবে নতুন আইফোনে। এই স্ক্রিন হবে বাঁকানো।
কত দাম হতে পারে? বিশ্লেষকেরা বলছেন, যে কাঠামো ও ফিচার নতুন আইফোনে ব্যবহার করা হচ্ছে, তাতে এর দাম এক হাজার ডলারের কাছাকাছি হবে। অর্থাৎ, এটি হবে এযাবতকালের সবচেয়ে দামি আইফোন। অবশ্য আইফোনের নাম নিয়েও নানা আলোচনা চলছে। নতুন আইফোনকে ‘এক্স’ নামেও ডাকা হতে পারে।
আইফোন ৮ নিয়ে অবশ্য আনুষ্ঠানিকভাবে অ্যাপল এখনো কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি। কিন্তু অ্যাপলপ্রেমীরা এক দশক পূর্তিতে অ্যাপলের কাছ থেকে চমক হিসেবে উদ্ভাবনী বৈশিষ্ট্যের আইফোন ৮ আশা করতেই পারেন। কারণ, আইফোন ৭ যে অনেকের কাছেই তার পুরোনো মডেলের নতুন সংস্করণ বলেই মনে হয়েছে।
যেমন হবে নতুন আইফোন:
অ্যাপলের নতুন প্রজন্মের প্রসেসর (এ ১০ এক্স বা এ ১১) থাকছে। থাকছে কাচ ও স্টেইনলেস স্টিল কাঠামো, বাঁকানো, এজ-টু-এজ ওএলইডি ডিসপ্লে। মাপ হতে পারে ৫ দশমিক ৮, সাড়ে পাঁচ ও ৪ দশমিক ৭ ইঞ্চি। থাকছে তারহীন চার্জিং, ইউএসবি সি কানেকটিভিটি, ভারচুয়াল হোম বাটন।
এছাড়া পানিরোধী, অগমেনটেড রিয়্যালিটি সুবিধার ডুয়াল লেন্স ক্যামেরার পাশাপাশি অ্যাপল আইফোন ৮ পেনসিল সমর্থন করবে। থাকছে আইরিশ স্ক্যানার বা ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, তিন জিবি র‌্যাম, ৬৪ জিবি ও ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ব্যবস্থাও। দাম হতে পারে এক হাজার মার্কিন ডলার।

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.