কাঁঠালের বীজ ফেলনা নয়

360

কাঁঠালের বীজ কি হেলাফেলার জিনিস? শুধু জিভে জল নয়, কাঁঠালের বিচিতে আছে এমন সব গুণ, যা শুনলে কাঁঠাল খেয়ে এর বীজ ফেলে দিতে ইচ্ছে করবে না। গুণে ভরপুরকাঁঠালের বীজ। কাঁঠালে রয়েছে প্রচুর প্রোটিন, ভিটামিন, পটাসিয়াম। আর কাঁঠাল বীজের গুণ শুনলে তো চমকে উঠবেন।

অ্যানিমিয়ার শত্রু কাঁঠালের বীজ। এতে রয়েছে প্রচুর আয়রন। হিমোগ্লোবিনের একটি উপাদান। ফলে, এটি খেলে অ্যানিমিয়া পালাবে। মস্তিষ্ক ও হার্টকে সুস্থ রাখবে আয়রন।

এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন এ। চোখের স্বাস্থ্যের জন্য এই ভিটামিন অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। রাতকানা রোগের দারুণ ওষুধ। চুলের আগা ফেটে যাওয়া রোধ করে এই ভিটামিন।

হজমশক্তি বাড়ায় কাঁঠালের বীজ। রোদে শুকিয়ে পাউডারের মতো গুঁড়ো করে ফেলতে হবে। বদহজমে সহজ হোমমেড রেমেডি এই পাউডার। কাঁঠালের বীজ খেলে কমবেকোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা। কারণ, প্রচুর ফাইবার থাকে কাঁঠালের বীজে।

ত্বকের বলিরেখা দূর করতে জাদুর মতো কাজ করে কাঁঠালের বীজ। কাঁঠালের বীজ শুকিয়ে গুঁড়িয়ে কোল্ড ক্রিমের সঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট করে লাগালে বলিরেখা পালাবে। ২-১টি বীজ দুধ ওমধুতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে তা দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিয়ে মুখে লাগাতে হবে। শুকিয়ে গেলে অল্প গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেললে ত্বকের উজ্জ্বলতা বেড়ে যাবে।

মানসিক চাপ দূর করে। প্রোটিন ও মাইক্রোনিউট্রিয়েন্টসে ভরপুর কাঁঠালের বীজ। মানসিক চাপ কমাতে বিশেষ কার্যকরী। এর পরেও কাঁঠাল খেয়ে বীজ ফেলবেন কি?

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.